শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ডেঙ্গু প্রতিরোধে কি করণীয়? ডেঙ্গু(Dengue) জ্বর প্রতিরোধ কি ভাবে করা সম্ভব? ডেঙ্গু প্রতিরোধের উপায়

ডেঙ্গু কি what is dengue / কি ভাবে ডেঙ্গু জ্বর ছড়ায় / dengue fever

ডেঙ্গু বর্তমান সময়ের সবচাইতে আলোচিত বিষয়ের একটি। এই জ্বর একদিকে মানুষকে যেমন দুর্বল করে দেয় আন্যদিকে এই জ্বরের রেশ মানুষের শরীরে দীর্ঘদিন থেকে যায়। তবে ডেঙ্গু কোনও প্রাণঘাতী রোগ নয়, নিয়ম মেনে চললে এবং বিশ্রাম নিলে ডেঙ্গু থেকে পুরপুরি মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

আলোচ্য বিষয় সূচি - Table of Content
১/ ডেঙ্গু কি
২/ ডেঙ্গু জ্বর কি ভাবে ছড়ায়
৩/ ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ গুলি কি কি
৪/ ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধের উপায় গুলি কি কি?
৫/ ডেঙ্গু জ্বরের ঔষধ
৬/ ডেঙ্গু রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা

আরও পড়ুন - প্লাস্টিক বোতলের তলায় ত্রিকোণ চিহ্ন টা কখনও লক্ষ্য করেছেন, জেনে নিন কি এর অর্থ?

ডেঙ্গু কি?(What is dengue?)

সোজা কথায় ডেঙ্গু হল একপ্রকার ভাইরাস ঘতিত জ্বর। ডেঙ্গু ভাইরাস বাহিত এডিস মসা মানুষ কে কামড়ালে ডেঙ্গু ভাইরাস মানুষের শরীরে ধুকে পরে, যার ফলে এই জ্বরের সংক্রমণ ঘটে।

সারা পৃথিবী জুড়ে প্রতিবছর ৪০০ মিলিয়ন মানুষ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয় যার মধ্যে ১০০ মিলিয়ন মানুষ আসুস্থ হয়ে পরে।

তবে ডেঙ্গু জ্বরে মৃত্যুর হার খুব কম, ১০০ মিলিয়ন মানুষ ডেঙ্গু তে সংক্রামিত হলে মৃত্যু ঘটে মাত্র ২২ হাযার মানুষের।

আরও পড়ুন - ভারতীয় রেল বেসরকারিকরণ। মানুষের জীবনে ভারতীয় রেল বেসরকারিকরণ এর প্রভাব

ডেঙ্গু জ্বরের কারন / ডেঙ্গু কি ভাবে ছড়ায়?(How dengue spread/ cause of dengue fever)

ডেঙ্গু জ্বরের জীবাণুবাহী এডিস মশা (Aedes Mosquito) কোন মানুষকে কামড়ালে সেই ব্যক্তি ৪ থেকে ৬ দিনের মধ্যে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পরে। এবার এই আক্রান্ত ব্যক্তিকে কোনো মশা কামড়ালে সেই মশা ডেঙ্গু জ্বরের জীবাণুবাহী মশায় পরিণত হয়। এভাবে একজন মানুষ থেকে আরেকজন মানুষ মশার মাধ্যমে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পরে। বাচ্চা, বয়স্ক মানুষ অথবা যুবক, যুবতী সকল প্রকার মানুষ এই জ্বরে আক্রান্ত হতে পারে।

আরও পড়ুন - নারীর কেন দুই রূপ - প্রথম আমি যেদিন ঋতুমতী হয়েছিলাম

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ গুলি কি কি?(Symptoms of dengue fever)

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ প্রকাশ পেলেও, মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ে না, তাই প্রাথম দুই দিন এই জ্বর শনাক্ত করা আক্তু কঠিন।

প্রাথমিক ভাবে ডেঙ্গু জর হলে প্রথম ৩ থেকে ৪ দিন হালকা জ্বর সহিত গা হাত পা ব্যেথা হয়। মাথা ব্যেথা, চোখে ব্যেথা, গাঁটে গাঁটে ব্যেথাও হতে পারে। অনেক সময় ব্যথা এত তীব্র হয় যে মনে হয় বুঝি হাড় ভেঙ্গে যাচ্ছে, তাই এই জ্বরের আরেক নাম “ব্রেক বোন ফিভার”।

ডেঙ্গু জ্বরের তৃতীয় দিনে শরীরের তাপমাত্রা ১০৪ থেকে ১০৬ ডিগ্রি অবধি হতে পারে। 

এই জ্বর হলে শরীরে জলের পরিমান কমে যায় তাই প্রস্রাবের পরিমান কমে যায়, বমি বমি ভাব দেখা যেতে পারে, খাবার খেতে আরুচি প্রকাশ পেতে পারে।

ডেঙ্গু জ্বর সাধারণত ৪ থেকে ৫ দিন মানুষের শরীরে স্থায়ী হয়।

আরও পড়ুন - বাংলাদেশ সমাজসেবা অধিদপ্তর (ডিএসএস) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি DSS Jobs Circular 2020

ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধের উপায় গুলি কি কি?(How to prevent dengue fever)

ডেঙ্গু  প্রতিরোধের প্রধান উপায় হল মশার বিস্তার রোধ করা। তবে কিছু প্রাথমিক সতর্কতা অবলম্বন করলে সহজেই এই জ্বর কে আটকানো সম্ভব।

  • বাড়ির সামনে কোনওরকম জল জমতে দেবেন না। বাড়ির সামনে কথায় জল জমে থাকলে টা পরিস্কার রাখার চেষ্টা করুন। জমা জল ডেঙ্গু ভাইরাস বাহিত এডিস মশার বংশ বিস্তাররের আনুকুল পরিবেশ।
  • রাতে ঘুমাবার সময় আবশ্যই মশারি ব্যবহার করুন । জাতে ডেঙ্গু মশা আপনাকে না কামড়াতে পারে।
  • বাচ্চাদের ফুল হাতা জামা পেন্ট পরিয়ে রাখুন।
  • ঘরে মশা মারার ঔষধ বা কয়েল ব্যবহার করুন।
  • ঘরবাড়ির আশে পাশে কোনরকম আবর্জনা জমতে দেবেন না।
  • আশে পাশে কোনও স্থানে জঙ্গল ঝোপ ঝাড় থাকলে সেই গুলি পরিস্কার করার ব্যাপারে নিকটবর্তী পুরসভাকে জানান।
  • বাড়ি কোথায়ও বা বাড়ির চারপাশে কোথায়ও কোন রকম বৃষ্টি র জল জমে থাকলে তা পরিস্কারের জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করুন।
  • বারিতে জাতে মশা মাছি না ধুকতে পারে সেই জন্য দরজা ও জানলা যথা সম্ভব বন্ধ রাখুন।
  • পুকুর ডোবা বা ড্রেন ব্লিচিং পাউদাড় ছিটিয়ে দিন, এতে  মশার বংশবিস্তার আটকানো সম্ভাব হবে।
  • সন্ধ্যে বেলা অথবা ভোর বেলা ফাঁকা জায়গাত, জঙ্গল, ডোবা এই সব জায়গা এরিয়ে চলুন, এই সকল স্থানে ভোর বেলা আর সন্ধ্যেবেলা মশার পরিমান বেশি লক্ষ করা যায়।

ডেঙ্গু জ্বরের ঔষধ (Medicine of dengue fever)

ডেঙ্গু জ্বরের কোন রকম ভেক্সিন বা ঔষধ বেরয়নি। কিন্তু এটা মাথায় রাখবেন ডেঙ্গু এক প্রকার ভাইরাস ঘটিত জ্বর তাই বাড়িতে সব সময় প্যারাসিটামল জাতীয় ঔষধ বা ট্যাবলেট রাখবেন। জ্বরের প্রবণতা অনুযায়ী দিনে তিন থেকে চারবার প্যারাসিটামল ট্যাবলেট সেবন করুন। 

ডেঙ্গু হলে শরীরে জলের পরিমান কমে যায়, তাই যত বেশী পরিমান জল পান করবেন তত তারাতারি এই জ্বর থেকে মুক্তি লাভ করা সম্ভব হবে।

মনে রাখবেন ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া এবং রক্তপরীক্ষা না করে কোন রকম এন্টিবায়োটিক সেবন আপনাকে মৃত্যুর দিকে নিয়ে যেতে পারে।

আরও পড়ুন - SBI এর ATM এ শুরু হতে চলেছে ১০ টি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ পরিসেবা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে

ডেঙ্গু রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা (First aid of dengue fever) 

ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত রোগী সাধারনত ৫ থেকে ১০ দিনের মধ্যে নিজে নিজেই সুস্থ হয়ে যায়। তবে এই রোগ হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন যাতে ডেঙ্গু কোনও মারাত্মক জটিলতা সৃষ্টি করতে না পারে।

ডেঙ্গু একটি মারাত্মক রোগ যার কোনও ঔষধ আবিষ্কার হয়নি। তাই সম্পূর্ণ ভালো না হওয়া পর্যন্ত বিশ্রামে থাকতে হবে।

জ্বর কমানোর জন্য প্যারাসিটামল ব্যবহার করবেন অন্য কোনও ঔষধ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া নেওয়া যাবে না। ভুল ঔষধ রক্তক্ষরণ এর সম্ভবনা বাড়িয়ে দিতে পারে।

জ্বর খুব বেশী হলে জলপট্টি ব্যবহার করবেন এবং ভেজা কাপড় দিয়ে রোগীর গা মুছিয়ে দিন।

ডেঙ্গুর কোনও নিদিষ্ট ঔষধ বা ভেক্সিন নেই তাই ডেঙ্গু আক্রাত রগিকে মশারির মধ্যে রাখবেন আর সকাল সন্ধ্যে মশা মারার ঔষধ ধুপ কয়েল ব্যবহার করবেন।

আরও পড়ুন - শুরু হবে করোনা টিকার ট্রায়াল, ভারতের পাঁচ যায়গায় সুরু হোতে চলেছে এই পরীক্ষা

মনে রাখবেন একমাত্র সচেতনতা ও প্রতিরোধের মাধ্যম ই ডেঙ্গু জ্বর এর হাত থেকে বেঁচে থাকার একমাত্র উপায়।

আশাকরি আমাদের এই প্রতিবেদনটি ডেঙ্গু জ্বরের প্রতিরোধ করতে আপনাদের সাহায্য করবে। প্রতিবেদন টি কেমন লাগলো নিচে কমেন্ট করে জানাবেন।

Related Topic -
What to do to prevent dengue  in Bengali,  How can dengue fever be prevented - in Bengali, Ways to prevent dengue- in Bengali, know about dengue fever in Bengali, First aid of dengue fever in Bengali, what is Dengue in Bengali , Symptoms of dengue fever in Bengali, cause of dengue fever in Bengali, how dengue spread in Bengali.
ডেঙ্গু জ্বর কি, কি ভাবে ডেঙ্গু জ্বর ছড়ায়, ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ, ডেঙ্গু জ্বরের প্রতিরোধ, কি করবেন ডেঙ্গু জ্বর হলে, কি ভাবে ডেঙ্গু জ্বর আটকাবেন, ডেঙ্গু জ্বরের প্রাথমিক চিকিৎসা কি ভাবে করা সম্ভব, কোন কোন লক্ষণ দেখে বুজবেন ডেঙ্গু জ্বর হয়েছে, ডেঙ্গু র চিকিৎসা কি ভাবে করবেন, কিভাবে ডেঙ্গু আটকাবেন, ডেঙ্গু রোগের ঔষধ কি, ডেঙ্গু কিভাবে ছড়ায়, ডেঙ্গুর লক্ষণ ও প্রতিরোধ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

কীভাবে সরষে ইলিস রান্না করবেন - সরষে ইলিশ রান্নার রেসিপি

সরষে ইলিশ রান্নার পদ্ধতি- বন্ধুরা ইলিশ মাছ খেতে কোন বাঙালি না ভালো বাসে বলুন ? আর তাই যদি হয় সরষে দিয়ে ইলিশ তাহলে তো যে কোনও বাঙ্গালির জিভে ...