গোলাপ ফূল নিয়ে সেরা ১০ টি বাংলা কবিতা - গোলাপ ফূলের কবিতা - বিকাশবাংলা - Bikash Bangla

সরকারি চাকরি, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, রান্নার রেসিপি, সাস্থের খবর, খবর, latest news, new job news, cooking recipe, online income, blogging tutorial, health tips

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

শুক্রবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২১

গোলাপ ফূল নিয়ে সেরা ১০ টি বাংলা কবিতা - গোলাপ ফূলের কবিতা

গোলাপ ফূল নিয়ে সেরা ১০ টি বাংলা কবিতা - গোলাপ ফূলের কবিতা

বন্ধুরা গোলাপ আমাদের সবারি খুবি প্রিয় ফুল, আর গোলাপ ফুল নিয়ে কবিতা ভালো লাগেনা এমন বাঙ্গালি দেখা পাওয়া বিরল। আর গোলাপ নিয়ে কবিতা আমাদের বাঙ্গালি কবিদের কাছেও খুব প্রিয় বিষয়।
 

প্রিয় জন এর মন ভাঙ্গাতে গোলাপ ফুল নিয়ে ভালো কবিতা র ভূমিকা অনস্বীকার্য। তাই আজ নিয়ে এলাম গোলাপ ফুল নিয়ে সেরা ১০ টি কবিতা।


গোলাপ

- আবদুল্লাহ আল মামুন

গোলাপ ফুটেছে শত তোমার মায়া ভরা কাননে
রয়েছে তোমার কোমল হাতের দীপ্ত পরশ, গড়েছ যতনে ।
ফুটেছে লাল, সাদা ফুল শত সাধনায় ভরা তোমার বাগানে
দেখে নয়ন জুড়ায় আমার হৃদ মাজারে,
দেবে কী আমায় তুমি একটি রক্ত গোলাপ নিজের হস্তে তুলে ?

গোলাপ তোমার মতন আমারও প্রিয়
সুপ্ত বাসনায় লোভে মত্ত আমার সব ইন্দ্রিয় ।
দেবে কী আমায় তুমি একটি সাদা গোলাপ ?
গন্ধ শুকে করে নিবো আমার হৃদয়কে সক্রিয় ।

গোলাপ ফুটেছে আজ তোমার বাগানে পূর্ণ কানায়  ভরে
কী অপরূপ রূপে সেজেছে সব শ্মৃঙ্খলীত সারিবদ্ধ ধরে
দেবে কী আমায় তুমি একটি গোলাপ তোমার নিজের হাতে তুলে ?

আমারও আছে তোমার গোলাপের মত হাজারও কবিতা
তোমার কাননে ফুটা গোলাপের মত আমারও বুকে ফলায় শত কবিতার চাষ ।
যদি তুমি দাও আমাকে তোমার বাগানের একটি গোলাপ
আমিও তোমাকে দেব আমার বুকে ফলানো অজস্র কবিতা ।
 

[♥] লাল গোলাপ ভালবাসা [♥]

- অন্তলীন আমি

সদ্য ফোটা একটি রক্ত গোলাপ
যেনো তোমার জন্যই ফোটা,
হাতে নিয়ে দাড়াবো তোমার সামনে l

রক্ত গোলাপ তোমার দিকে বাড়িয়ে
নিশ্চুপ থাকবো দাড়িয়ে
শুধু বলবো
"ভালবাসি তোমায় প্রিয়তি" l

তখন কি দুহাত বাড়িয়ে
নেবে সেই রক্ত গোলাপ (?)
নাকি বলবে ফিরে যাও
তোমার কথা শুধু পাগলের প্রলাপ…l

তখন কি ফিরিয়ে দিবে আমায়
গোলাপের কাটায় মনকে বিদ্ধ করে (?)
নাকি মুখে নিয়ে একচিলতে হাসি
হাত বাড়িয়ে গোলাপ নিয়ে
বলবে ভালবাসি ভালবাসি.…l

 
 

একটি গোলাপের কাব্য

সুদীপ বিশ্বাসের কবিতা

তুমি আমার বনলতা সেন,
আমার শেষের কবিতা!
হৃদয়ের ক্যানভাসে আঁকা,
মোনালিসা,তোমার ছবিটা! !

আজিকার যুগে এ সবকিছুই
  পাগলের    প্রলাপ!
ভালোবাসিতে পারি বন্ধু,
আনো যদি লাল গোলাপ! !

প্রেমের গল্পে বাধা দিতে আসে,
বৃষ্টি নামের ভুল!
ঝড়ো বাতাসে ঝরিয়া পড়ে,
গাছের গোলাপ ফুল!!

প্রেমিক হৃদয় আজ বেদুইন,
লাল গোলাপের জন্য!
পাইবে না সে প্রেমিকার হৃদয়,
দিলে ফুল অন্য! !

সাদা ফুল হল রক্ত লাল ,
ভালোবাসার গৌরবে!
মোহনীয় হল গোলাপ ফুল,
নবীন  প্রেমের সৌরভে!!

প্রেমিকা তাহার চলে গেল দূরে,
ছেড়ে পৃথিবীর মায়া!
ব্যর্থ প্রেমিক ফুল হাতে কাঁদে,
দু চোখে তাহার কায়া!!

প্রেমের কাহিনী হইল না শেষ,
যদিও হইল   ইতি!
নষ্ট গোলাপ আজও গেয়ে যায়,
প্রেমনগরের গীতি!!
 
 

কবিতা: পবিত্র গোলাপ

    কবি: নির্ঝর প্রকাশ
    উৎসর্গ: শহীদ বিপ্লবী
    লিখার স্থান: সিলেট


আজ শহরে একটা মিছিল বের হয়েছিল, সেই মিছিল শেষে রাজপথ থেকে কুড়িয়ে পাওয়া একটি গোলাপ নিয়ে তোমার সামনে এসেছি!

গোলাপটি হয়তো কোন বিপ্লবী প্রেমিক তার বুক পকেটে রেখেছিল, মিছিল শেষে গুঁজে দেবে প্রেমিকার খোঁপায়।

মিছিলের পরেই দেখা করবো- এমন কথায় এখনও হয়তো অপেক্ষায় আছে তার প্রেমিকা। এ অপেক্ষা শেষ হবেনা আর কোনদিন! বর্বরদের রাইফেল থেকে ছিটকে বের হয়েছিল কার্তুজ, আর গোটা কয়েক বুলেট ক্ষত-বিক্ষত করেছে প্রেমিকের বুক।

রক্তে ভিজছে পথ…

রাজপথে কয়েকটা লাশ দেখে এসেছি, সেখানেই একদম স্থবির হয়ে আছে প্রেমিক। সেই প্রেমিকের চেহারাটা যেন একদম আমার মতো, নাকি আমিই সেই প্রেমিক।

রক্ত দেখে হয়তো ভ্রম হচ্ছে আমার…

বুলেটের আঘাত সত্বেও অক্ষত আছে গোলাপ।প্রেমিক হৃদয়ের তাজা রক্ত মেখে গোলাপের রঙ হয়েছে একদম কড়া লাল।

এমন পবিত্র গোলাপ বহুবছর দেখিনি, বহুল আলোচিত স্বর্গের পারিজাতও এমন স্নিগ্ধ হওয়ার কথা নয়।

তাই আমার উপর আরোপিত সকল বিধি-নিষেধ, শর্তাবলী ভুলতে পেরেছি এক নিমিষেই। এ গোলাপ আমাকে দিতেই হতো কোনো প্রেমিকার হাতে।

“আমাদের মধ্যকার সবকিছু শেষ হয়ে গেছে, ভুলে যেও আমায়” – তোমার এই কথা শুনার পর বিশ্বাস করো আর একবারও তোমায় ভাবিনি, এই দিনগুলোতে ভালোবাসার রঙ হয়েছে মলিন, অপেক্ষা হয়েছে খাঁটি হেমলক।

তবুও এই গোলাপ তোমাকে দিতেই হতো…

এটাই হয়তো ছিল সেই শহীদ প্রেমিকের শেষ ইচ্ছা- তার রক্তে ভেজা গোলাপ স্পর্শ করুক কোন প্রেমিকার কোমল হাত।

এভাবেই হয়তো বিপ্লব আর প্রেম মিশে যাবে বারবার, গোলাপ ছুঁবে তুমি, সুদিন ফিরে আসবে আবার। 

 

স্মৃতি – নীলাঞ্জন

লিখেছেন-
nilanja roy

আজ হঠাৎ করে মনে পড়লো খুব তোকে
হঠাৎ করে ফিরে গেলেম পুরনো দিনেতে ,
সেই পোড়ো মন্দির ঘাট
মন্দিরের ডান দিকের ওই বেঞ্চটা ,
ওটা আজও তেমনি খালি পরে আছে
শুকনো পাতার ছাদরে , নিজেকে কেমন আগলে রেখেছে;

আর তোর সেই প্রিয় কাগজী ফুলের গাছ,
লাল সাদা আরো কত কি রঙের পাপড়ি নিয়ে
ছড়াতাম তোর চুলে-
ওই গাছটা আজও আছে,
তবে আজ মনে হল কেমন শুঁকিয়ে গেছে।
কি জানি, ওর ও হয়তো মন খারাপ
ও হয়তো চায় সব ফিরে পেতে,
হয়তো চায় তোর ছেলে-মানুষি , তোর হাসি;

জানিস , বেশ বসেছিলাম ঘাটের একটা সিঁড়িতে,
ফুরফুরে হাওয়ায় তোর খোলা চুলগুলো
ঠিক আগের মতোই আমার মুখে যেন
কত চেনা ইঙ্গিত দিয়ে গেল,
হুশ, ফিরল হঠাৎ অতর্কিতেই , পাশ ফিরলামনা,
তোকে না দেখতে পাওয়ার ভয়েই;
বিজ্ঞাপন

তোর অভাব এখন খুব টের পাই রে ,
এখন অনেক খালি লাগে আমায় ,
সকালে কেউ আর ঘুম ভাঙ্গায় না ,
সারাটা দিন ঘরেই কেটে যায়
রাতে আবার ঘুম আসেনা,
ছাদের কোনায় একলা বসে থাকি
কখনো আবার তারাদের মাঝে-
তোর ওই কাজল চোখ আঁকি।

আচ্ছা, নীল রং কি এখনো ভালোবাসিস ?
পাঞ্জাবিতে আছে দুর্বলতা ?
আজও আমায় দেখতে পেলে কি তুই-
জাপটে ধরবি, ভুলে সব যন্ত্রণা ?
কবিতায় এখনো আমায় খুজিস ?
মনে পড়ে মন খারাপে?
নাকি এখন পুরোই বদলে গেছিস,
হারিয়ে গেছিস নিজের আজান্তেই।
আমার দেওয়া চিঠি গুলো সব আছে?
আছে বইয়ের ভাজে শুকনো গোলাপ ?
আজও বুঝি লুকিয়ে রাখিস সব ?
আজও কান্না চাপিস বুকের মাঝে ?

এখন হয়ত ভালোই আছিস তুই
যেমন ছিলিস, আমি আসার আগে,
আমিই হয়তো আঁকড়ে ধরে আছি
এখনো বাঁচি শুধু তোর স্মৃতিতে।

সাজানো গোলাপ

লেখক- ঋষি
অনেকটা অনভ্যাস পেরিয়ে
তোর টেবিলে সাজানো অনেকগুলো গোলাপ।
ইচ্ছেদের সুন্দর টেম্পটেশন জুড়ে বসে
একঝাঁক প্রজাপতি আকাশ জোড়া গভীর চোখ।
মিষ্টি হাসি
হারিয়ে যাওয়া ইচ্ছাদের চোখে শুকনো গোলাপ।

সময়ের মতন অপ্রিয় কিছু
গোলাপের কাঁটার মতন অসংখ্য ইমোশান।
ডালপালা ছেঁটে অল্প বিস্তর তৃষ্ণায় সাজানোর ইচ্ছা জীবন
এমনি কেটে যায়।
গোলাপের মতন তোর টেবিলে
আমিও মুখ চেপে থাকি টেবিলের উপরে সাদা পাতায়।
অজস্র আঁচড়
হৃদয়ের দাগ ,ছোপ ছোপ ,যন্ত্রণা গোলাপ রঙের।
এই সুবাস পেয়ে গেছি আমি
তোকে খুলে ফেলবো কোনদিন ,কখনো ,কোথাও।
গোলাপের পাঁপড়ি ছড়ানো ইচ্ছাগুলো
সকলে গোলাপ হতে চাই ,সুগন্ধময়।
অথচ শুকনো গোলাপ সময়ের ফলাফলে
ডাস্টবিনে একটু জায়গা পেয়েই যায়।

অনেকটা অনভ্যাস পেরিয়ে
তোর পাঠানো সেল্ফিতে গোলাপ হাসছে।
হাসছে গোলাপ ইচ্ছেদের মতন তোর ঠোঁটের লিপস্টিকে
সময় এমনি হয়।
লাল ইচ্ছেদের মতন নরম তুলতুলে আদর
অথচ কেন যে ইচ্ছেরা শুকোতে থাকে। 
 

শুকনো গোলাপ

লেখক - অজানা
শুকনো গোলাপে বন্দি স্মৃতি
বর্ষার আদরে তোমার নামে আজো
মনের শহর জুড়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস!
হেরে গিয়েছি সেদিন,
যেদিন প্রেমের কাছে ভালোবাসা হারল!

এ প্রেম সেই প্রেম নয়!
বুকের উষ্ণতায় তুমি যতবার প্রেম পোড়াতে চেয়েছ,
আমি ততবার বুকে টেনে  তোমায় বলেছি ভালোবাসি।
তবুও তুমি অবহেলে ঠেলে দিয়ে,
সমস্ত আবেগ টেনে হিঁচড়ে নিয়ে গেছ
রাত্রের অগোছালো বিছানায়!
আমার শরীরে শরীরে তুমি সহজেই প্রেম ছড়িয়ে দিয়েছে,
অথচ একবিন্দুও ভালোবাসতে পারোনি!

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

MAIN MENU