News লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান
News লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান

রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

জানা অজানায় জন্ম শতবর্ষে ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় (Bhanu Bandopadhyay) :

জানা অজানায় জন্ম শতবর্ষে ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় (Bhanu Bandopadhyay)

গত শতকের দ্বিতীয়-তৃতীয় দশকে রুশ বিপ্লব এমনই এক আশা জাগিয়েছিল যে, পুরনো ছাঁচে-আঁটা সমাজের জায়গা নেবে এক নতুন সমাজ, যেখানে প্রতিটি মানুষেরই স্বাধীন বিকাশ হবে। তেমন আশা থেকেই সম্ভবত বিপ্লবের তিন বছর পর ১৯২০-সালে যখন ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় (Bhanu Bandopadhyay) ঢাকা শহরে জন্মগ্রহন করলেন, দাদামশাই যোগেন্দ্র চট্টরাজ তাঁর নাম রাখলেন: সাম্যময়

সরকারি বারণ না শোনায় ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় (Bhanu Bandopadhyay)- এর  দাদামশাইয়ের একটি বই তদানীন্তন ব্রিটিশ শাসক নিষিদ্ধ করে দেয়। ভানু বাবুর মাতৃদেবীও ইংরেজ-শাসনের তোয়াক্কা না করে এক পুলিশ ও মেমসাহেবকে উচিত শিক্ষা দিয়েছিলেন তাঁদের অভব্য আচরণের প্রতিবাদে। প্রতিবাদের এই মনটাই  ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় পেয়েছিলেন পারিবারিক উত্তরাধিকারে।

মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

Doctor Kafeel Khan Released : অবশেষে মুক্তি পেলেন মানবতা বাদী ডক্টর কাফিল খান

Doctor Kafeel Khan Released : অবশেষে মুক্তি পেলেন মানবতাবাদী ডক্টর ডঃ কাফিল খান
সত্যের জয় হলো। অবশেষে মুক্তি পেলেন মানবতা বাদী ডক্টর কাফিল খান।

ডাক্তার কাফিল খানের (Doctor Kafeel Khan) বক্তব্য দেশ বিরোধী কিংবা ঘৃণা ছড়ানোর ছিল না, সেটা ছিল ভারতীয় অখণ্ডতা এবং ঐক্যের পক্ষ জানিয়ে এলাহাবাদ হাই কোর্ট ভর্ৎসনা দিলো NSA কে। হাইকোর্ট এ মুখ পুড়ল যোগী সরকারের। আদালত সাফ জানিয়ে দিয়েছে কাফিল খানের বক্তব্যে কোনও হিংসা বা বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিসন্ধি ছিল না, তাঁকে আটকে রাখা বে আইনি।

শনিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২০

আসতে চলেছে নতুন অতিথি, মা-বাবা হতে চলেছেন অনুস্কা শর্মা এবং ভারত ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি

আসতে চলেছে নতুন আতিথি, মা-বাবা হতে চলেছেন অনুস্কা শর্মা এবং ভারত ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি, সোশ্যাল মিডিয়াতে ছবি প্রকাশ করলেন বিরাট এবং আনুস্কা

আসতে চলেছে নতুন আতিথি, মা-বাবা হতে চলেছেন অনুস্কা শর্মা এবং ভারত ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি, খুশির খবর জানালেন বিরাট এবং আনুস্কা, বৃহস্পতিবার সকাল সকাল সুখবর ঘোষণা করলেন বিরাট এবং আনুস্কা জুটি। এই দিন সকালে দুজনেই তাদের সোশ্যাল মিডিয়া তে পোস্ট করে জানান-"আগামী দিনে আমরা ৩ জন হতে চলেছি, সে আসছে ২০২১  এর জানুয়ারিতে।

সোমবার, ২৪ আগস্ট, ২০২০

আইভি রহমানের মৃত্যু মানা যায় না - বললেন শেখ হাসিনা

সোমবার মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আইভি রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

আইভি রহমানের মৃত্যু মানা যায় না - বললেন শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন -

"আইভি রহমানের এমন বীভৎস মৃত্যু মানা যায় না"


রবিবার, ২৩ আগস্ট, ২০২০

পৃথিবীর ১৬ টি আজানা বিস্ময়কর তথ্য

বন্ধুরা এই মহাবিশ্ব এমন আনেক আজানা তথ্য আছে যা আমাদের সবার কাছে খুবি আদ্ভুত ব্যাপার, আজ আমাদের এই প্রতিবেদন এর মাধ্যমে আমরা মহাবশ্ব তথা  পৃথিবীর এমন ১৬ টি আজানা রহস্যময় তথ্য তুলে ধরলাম

পৃথিবীর  ১৬ টি আজানা বিস্ময়কর তথ্য

আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরছি এমনই কিছু বিস্ময়কর এবং রহস্যময় তথ্য: 

শুক্রবার, ২১ আগস্ট, ২০২০

অবশেষে মিমাংসা হল ভারত চিন সীমান্ত বিবাদের - সেনা সরাতে রাজি দুই দেশ

অবশেষে মীমাংসা হোলো ভারত চিন সীমান্ত বিবাদের, এমনটাই জানানো হয়েছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে।
ভারত চিন সিমান্তে যে আশান্তি চলছে দুই দেশের মধ্যে সেই প্রসঙ্গে  ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র আনুরাগ শ্রীবাশ্তব জানান -
তাঁরা আবারও নিশ্চিত করে জানিয়েছেন যে বিদেশমন্ত্রীদের মধ্য়ে যে চুক্তি হয়েছে তা মেনে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় পশ্চিম সেক্টর বরাবর সম্পূর্ণ সেনা সরানোর কাজ করা হবে। বাকি সমস্য়াগুলিও দ্রুত সমাধান করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে দু’দেশ।
প্রসঙ্গাত উল্লেখজগ্য গত ১৫ জুন সংঘর্ষ বাধে ভারতীয় ও চিনা সেনাদের মধ্যে। এরপর সেনা সরানর ব্যাপারে একমত হতে একাধিক বার বাইথক করেন দুই দেশের সেনা প্রধানরা। কিন্তু চিন সেনা সরাতে রাজি না হওয়াতে সেই বৈঠক বার বার বিফল হয়েছে।
[full_width]
[full-width]

রবিবার, ২ আগস্ট, ২০২০

সমাজ বাদি পার্টির নেতা ও রাজ্য সভার সাংসদ অমর সিং প্রয়াত

মারা গেলেন সমাজ বাদি পার্টির নেতা ও রাজ্য সভার সাংসদ অমর সিং,  কিছু দিন ধরেই কিডনির অসুখে ভুগছিলেন তিনি । শনিবার বিকেলে সিঙ্গাপুরের এক হাসপাতালে মৃত্যু হয় অমর সিংয়ের। মৃত্যুকালে তার বয়েস হয়েছিল ৬৪ বছর।
সমাজ বাদি পার্টির নেতা ও রাজ্য সভার সাংসদ অমর সিং প্রয়াত
অমর সিং ফাইল ছিত্রা
২০১৩ সালে তাঁর একটি কিডনি ড্যামেজ হয়ে যায়, সেই কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট করতে হয়। তার পর থেকে আর সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি মুলায়ম সিং এর ঘনিষ্ঠ এই নেতা।

টলিউড বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাইমা সেন এর অন্তর্বাস পরা ছবি - রাইমা সেন এর বোল্ড ছবি

টলিউড (Tollywood) ও বলিউড (Bollywood) এর অন‍্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাইমা সেন (Raima Sen) সম্প্রতি তার বোল্ড লুক ছবি পোস্ট করলেন তার ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইল পেজ-এ।

রাইমা সেন যার দিদিমা হলেন মহানায়িকা সুচিত্রা সেন যিনি বাংলা সিনেমার অন্যতম শ্রেষ্ট এবং কালজয়ী একজন অভিনেত্রী এবং মা হলেন স্বনামধন্য অভিনেত্রী মুনমুন সেন।

হিন্দি, বাংলা ছাড়া দক্ষিণেও পৌঁছে গিয়েছে রাইমার ম‍্যাজিক। গত বছরে একটি তামিল ছবিতে অভিনয়  করেছেন রাইমা সেন।  বাংলায় তাঁর সর্বশেষ ছবি ‘দ্বিতীয় পুরুষ', সৃজিত মুখার্জির পরিচালনায়, যেটি সুপারহিট বাংলা সিনেমা ২২ শে  শ্রাবন এর  সিক্যুয়াল।


রাইমা সেন এর ইন্সতাগ্রাম ফীড

জ্বলন্ত সিগারেট ঠোঁটে নিয়ে শুয়ে আছেন রাইমা


ইন্সতাগ্রাম এ নিজের বোল্ড ছবি পোস্ট করলেন রাইমা সেন

 

 দেখে নিন রাইমা সেন এর ইন্সতাগ্রাম ফটোশুট এর ভাইরাল ভিডিও


৩৪ হাজারের বেশি লাইক পড়েছে এই ছবিতে। পোস্ট করা মাত্রই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে রাইমার এই ছবিগুলি।

লং বব কাট চুল, ডিপ নেক পোশাকের উপর দিয়ে উঁকি দিচ্ছে রাইমার বক্ষ বিভাজিকা


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেন


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


সিগারেট হাতে চিত্রনায়িকা


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


উকি দিচ্ছে উম্মুক্ত বক্ষ বিভাজিকা

[full_width]
 

শনিবার, ১ আগস্ট, ২০২০

DIL BECHARA REVIEW - জেনে নিন সুশান্ত অভিনিত শেষ ছবি 'দিল বেচারা' র গল্প

অবশেষে ২৪ জুলাই মুক্তি পেল সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Sing Rajput) অভিনিত শেষ ছবি 'দিল বেচারা' (Dil Bechara), আজ আমরাো 'দিল বেচারা ছবিটির গল্প' নিয়ে আলচোনা করব।

'দিল বেচারা' হল সেই ছবি যা দেখার জন্য  'সুশান্ত সিং রাজপুতের' অগুনিত ভক্ত ও সিনেমা প্রেমিরা এতদিন আগ্রহে ভরে অপেক্ষা করছিলেন,  অন্যান্য ছবির থেকে 'দিল বেচারা' দেখার জন্য যে  আলাদা আবেগ কাজ করবে সুশান্ত সিং রাজপুত এর ভক্ত ও সিনেমা প্রেমিদের মনে তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। 

দিল বেচারা (বাংলা অসহায় হৃদয় ) চলচ্চিত্রটি  জন গ্রিনের ২০১২ সালের উপন্যাস দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস  এর হিন্দি চলচ্চিত্র রূপান্তর, মুখেশ ছাবড়ার (Mukhesh Chabra) পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র এবং সুশান্ত সিং রাজপুত এর অভিনিত শেষ চলচ্চিত্র, যিনি চলচ্চিত্র মুক্তি পাওয়ার আগে ২০২০-এ ১৪ই জুন মারা গিয়েছিলেন। নায়িকা হিসাবে সঞ্জনা সংঘী ( Sanjana Sanghi ) এর অভিনিত প্রথম সিনেমা হল দিল বেচারা।
হ্যাঁ, ছবি দেখার চাইতে 'দিল বেচারা'তে সুশান্তকে দেখার ইছেতাই যেন নিজের অজান্তেই মনের মধ্যে অগ্রাধিকার পায়। ছবির শুরুর দিকে কিজি বসুর (সঞ্জনা সঙ্ঘী) মুখ থেকে  'এক থা রাজা, এক থি রানি। দোনো মর গ্যায়ে, খতম কাহানি, পর অ্যায়সি কাহানিয়া কিসকো আচ্ছি নেহি লাগতি', ডায়ালগটা শুনে কিছুটা চমকে জেতেই হয়, তবে গুল্পটি আরো জমে ওঠে যখন ম্যানির উপস্থিতি ঘটে কিজি বসু এর জীবনে। নাহ... কিজির গল্প কিন্তু শেষ হতে দেননি ম্যানি। ক্যান্সারে আক্রান্ত, বাবা-মাকে ঘিরে চলা কিজির 'বোরিং', মৃতপ্রায় জীবনে নাতুন করে আশার আলোর সঞ্চার করেন ম্যানি ওরফে ইম্যানুয়েল রাজকুমার জুনিয়র ওরফে সুশান্ত সিং রাজপুত। নিজের জন্য নয়, প্রেমিকা,বন্ধু কিজির ইচ্ছাপূরণ করতেই যেন নতুন করে শুরু হয় ম্যানির পথ চলা। কিজি বসুর সাথে দেখা হবার পর ম্যানি যেন তার নিজের  জীবনেও নতুন আলোর হদিস পায়।

'' আমিও অনেক বড় বড় স্বপ্ন দেখি, তবে সেগুলো পূরণ করতে ইচ্ছা করে না'', কিজির বাবাকে এরকমি বলে ছিল সুশান্ত, থুরি ম্যানি।

কিজি আর ম্যানি'র জীবনের মিষ্টি আবেগঘন একটা স্বল্প সময়ের প্রেমের গল্প হল এই 'দিল বেচারা' । তবে এই স্বল্প সময়ে কিভাবে দাপিয়ে বেড়ানো যায়, জীবনকে উপভোগ করে বেঁচে থাকা যায়, জীবনের শেষ ছবিতে তা আরও একবার  শিখিয়ে দিয়ে গেলেন সুশান্ত। সত্যিই তো ''জন্ম কবে, মৃত্যু কবে, তা আমরা ঠিক করতে পারি না, তবে কীভাবে বাঁচবো সেটা তো  আমরা ঠিক করতে পারি''। 

“Janam kab lena hai aur marna kab hai yeh hum decide nehi kar sakte, lekin kaise jeena hai woh toh hum decide kar sakte hai”

দিল বেচারা চলচ্চিত্রটিতে কিজি ও ম্যানি দুজনেই জানে যে- মৃত্যু তাঁদের দরজার বাইরে দাঁড়িয়ে কড়া নাড়ছে। তবু সেই কড়া নাড়ার শব্দকে এড়িয়ে জীবনের প্রতিটা মুহূর্ত কিভাবে উপভোগ করতে হয় সেটাই শিখিয়ে দিয়ে গেলেন দিল বেচারার ম্যানি। 


ছবির শেষের দিকে ম্যানির লেখা চিঠিতে ''ইয়ে রাজা তো মর গ্যায়া, পর মেরি রানি আভি জিন্দা হ্যায়, আর তবতক মেরি কাহানি ভি জিন্দা হ্যায়''। এই ডায়ালগটাতেও যেন বাস্তবের সঙ্গে অদ্ভুত মিল।

ছবিতে সুশান্ত এর চরিত্রটি যেন মনে করিয়ে দেয় আনান্দ ছবির রাজেশ খান্না (Rajesh Khana) কে।
যাইহোক  সুশান্ত সিং রাজপুতের পাশাপাশি ছবিতে অনবদ্য অভিনয় করেছেন কিজি বসু ওরফে সঞ্জনা সঙ্ঘী। 'রকস্টার', 'হিন্দি মিডিয়াম'-এর সেই ছোট্ট সঞ্জনা যে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অভিনয়েও যে পরিণত হয়েছেন তা 'দিল বেচারা' তে তার অভিনয় দেখলেই বোঝা যায়। সুশান্তময় এই ছবিতে আলাদা করে দর্শকদের মনে জায়গা করে নেবে সঞ্জনা সঙ্ঘী এর অভিনয়।   

ছবিটিতে আলাদা করে মন ছুঁয়ে যায় কিজির মা-বাবার ভূমিকায় স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের অভিনয়, বলার অপেক্ষা রাখেনা ছবিটিকে পূর্ণতা দিতে তাঁদের ভূমিকা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। 

অতিথি শিল্পীর ভূমিকায় ভাল অভিনয় করেছেন সইফ আলি খান (Saif Ali Khan)এ আর রহমান  (A R Rahaman) এর মিউজিক আলাদা করে দর্শকদের মণ ছূয়ে যেতে বাধ্য। 

চিত্রনাট্য ছোটখাটো কিছু ফাঁক ফোঁকর থাকলেও সবকিছুই ঢাকা পড়ে গিয়েছে কান্না-হাসি-মজা তে ভরা দিল বেচারা ছবির গল্পে।

[full_width]

দেশের একটি রাস্তার নাম ‘শ্রীনগর হাইওয়ে”রাখল পাকিস্তান - Pakistan Renaming Islamabad's Kashmir highway to Srinagar highway

পাকিস্তান (Pakistan) কাশ্মীরকে (Kashmir) নিয়ে কতটা পাগল তারই নমুনা বোঝালো তাঁরা, সেইকারণেই দেশের একটি জাতীয় সড়কের নাম শ্রীনগরের নামে রাখতে চলেছে পাকিস্তান। কাশ্মীর না পাওয়ার দুঃখ কিছুতা লাঘব করার উদেস্যেই হয়তো এই কাজ করেছে তারা। শুধু তাইই নয়  ৫ই আগস্ট জম্মু আর কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার বছরপূর্তির  বিরধিতায় সারা দেশ জুরে পাঁচ আগস্ট দেশে কালা দিবস পালিত হবে।


আর এর বিরোধিতায় পাকিস্তানি সেনা এবং পাকিস্তানের গোয়েন্দা বিভাগ ISI কয়েক পাতার একটি কার্যক্রমও জারি করেছে।

আপরদিকে, পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি (Shah Mahmood Qureshi), ইসলামাবাদের (Islamabad) কাশ্মীর হাইওয়ের (Kashmir Highway) নাম বদলে শ্রীনগর হাইওয়ে (Srinagar Highway) রাখার ঘোষণা করেছেন। জানিয়ে রাখি, পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের প্রধান রাস্তা গুলির মধ্যে কাশ্মীর হাইওয়ে হল একটি, এই রাস্তাটি ইসলামাবাদের পশ্চিমে Pakistan International Airport কে পূর্বের E-75 হাইওয়ের সাথে যোগ করে, এই হাইওয়েটি ২৫ কিমি দীর্ঘ।

 এই বিষয়ে ইস্লামাবাদের এক সাংবাদিক Naila Inayat বলেন যে - "আমার গন্তব্য শ্রীনগর আর এই হাইওয়ে একদিন আমাকে শ্রীনগর পর্যন্ত নিয়ে যাবে।"
 After renaming Islamabad's Kashmir highway to Srinagar highway on Aug 5, Kashmir ban jaeyga Pakistan. - Naila Inayat said at twitter
 News Source - Bangla Hant News

আগস্ট মাসের চূড়ান্ত লকডাউন এর দিন গুলি জেনে নিন - পশ্চিমবঙ্গের আধিবাসিদের জন্য বিশেষ খবর

পশ্চিমবঙ্গের করোনা পরিস্থিতির কথা বিচার বিবেচনা করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পশ্চিমবাংলায় আগামী ৩১ শে আগষ্ট আবদি সপ্তাহে দুইদিন করে লকডাউনের ঘোষণা করেছেন। চলতি সপ্তাহে বুধবার এবং রবিবার লকডাউন থাকবে।
পূর্বেই ঘোষণা করা হয়েছিল যে,  ৩১ শে আগষ্টের মধ্যে রাজ্যে লকডাউন যারি রাখা হবে – য়া কিন্তু তার পরেই বিভিন্ন মহল থেকে অনুরোধ আসতে শুরু করেছিলো যে ২ রা আগষ্ট এবং ৯ ই আগষ্টের লকডাউন পরিবর্তন করতে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য স্বরাষ্ট্র দপ্তর তাদের টুঁইটার এ জাণায় যে আগামী ২ রা আগষ্ট এবং ৯ ই আগষ্ট রবিবার ধর্মীয় উৎসব এবং আরো কীছূ গুরুত্বপূর্ণ পূর্বনির্ধারিত লকডাউনের সিদ্ধান্ত রদ করে আংশিক লোকডাউন করা হয়েছে।
কিন্তু তার কিছুক্ষন আগেই আবার রাজ্য সরকারের তরফ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছেন যে, কিছু সমস্যার জন্য লকডাউনের চূড়ান্ত দিনগুলি পরিবর্তন করা হয়েছে।
আসুন একবার দেখে নেওয়া যাক আগষ্ট মাসের  লকডাউনের চূড়ান্ত দিনগুলি কি কি -
৫ তারিখ - বুধবার
৮ তারিখ - শনিবার
১৬ তারিখ - রবিবার
১৭ তারিখ - সোমবার
২৩ তারিখ - রবিবার
২৪ তারিখ - সোমবার
৩১ তারিখ - সোমবার
অগস্ট মাসে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে এই কথা মাথায় রেখে সেই সময়টা অবহেলা করা ঠিক হবে না বলে মন্তব্য করে মুখ্যমন্ত্রী আজ জানান যে ‘‘এখানে ৩১ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন ছিল। এ বার আমরা তা বাড়িয়ে ৩১ অগস্ট করে দিচ্ছি। এই সময় কালে যে ভাবে ভোর ৫টা পর্যন্ত নিয়মবিধি মানা হচ্ছিল, তা হবে। আর সপ্তাহে নির্দিষ্ট দিনগুলোতে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হবে। ওই দিনগুলোয় ট্রেন এবং প্লেন চলবে না।”

শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০

শিলিগুড়িতে বাড়ির চাল থেকে উদ্ধার মৃত মানুষের মাথার খুলি ও দেহের হার


শিলিগুড়িতে বাড়ির চাল থেকে উদ্ধার মৃত মানুষের মাথার খুলি ও দেহের হার

বাড়ির ভিতর থেকে উদ্ধার করা হল মাথার খুলি আর মানুষের হাড়। এই ঘটনার ফলে  ব্যাপক চাঙ্চল্য ডিঙিয়েছে শিলিগুড়ির সুভাষ পল্লি অঞ্চলে বাড়ির চালের থেকে উদ্ধার করা  হয়েছে ২টো মাথার খুলি। আর বাড়ির ভিতরে থেকে উদ্ধার হয়েছে মানুষের হাড়গোড়। কোথা থেকে এল এই সমস্ত মানুষের মাথার খুলি, হাড়গোড়? এই নিয়ে দানা বেঁধেছে  রহস্য, এ ঘটনাকে একদিকে যেমন তুলনা করা হচ্ছে ২০১৫ সালে কলকাতার রবিনসন স্ট্রিটের পার্থ দে-র ঘটনার কথা, তেমন অপরদিকে ভাবা হচ্ছে তন্ত্র সাধনার প্রসঙ্গ ও।

খবরের প্রকাশ শিলিগুড়ির সুভাষ পল্লির ওই বাড়ির বাসিন্দা ছিলেন খোকা চক্রবর্তী ও তাঁর স্ত্রী, বছর ১৫ আগে তাঁদের মৃত্যু হয়। ওই একই বাড়িতে  আগে বাবা, মায়ের সঙ্গে থাকতেন তাঁদের ভাগনে ভিক্টর চক্রবর্তী, ভিক্টর পেশায় বে সরকারি নিরাপত্তা রক্ষী ছিলেন, এলাকাবাসীর বক্তব্য, বেশ কিছুদিন আগে ভিক্টরের বাবা-মায়েদের মৃত্যু হয়। বাবা-মায়ের মৃত্যুর পর থেকেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন ভিক্টর, এর পরই এদিন বাড়ির ভিতর থেকে উদ্ধার হল মৃত মানুষের খুলি, হাড়গোড়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বাড়ির ভিতর থেকে খুব দুর্গন্ধ বেরতে শুরু করে। তখনই খবর দেওয়া হয় এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলর নিখিল সাহানিকে। এর পরই আজ বাড়ি পরিষ্কার করতে আসেন কর্পোরেশনের সাফাই কর্মীরা। তাঁরাই বাড়ির চালের উপর মানুষের মাথার খুলি ও ভিতর থেকে হাড়গোড় উদ্ধার করেন। এ প্রসঙ্গে নিখিল সাহানি জানিয়েছেন, "মঙ্গলবার এলাকা বাসী জানায়, এলাকা থেকে খুব দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। আজ আমি তাই লোক পাঠাই পরিষ্কার করার জন্য। তাঁরাই আমাকে খবর দিয়ে গোটা ঘটনা জানান। পুলিস তদন্ত করছে গোটা ঘটনার।"

এই ঘটনায় তুমুল চাঙ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। কোথা থেকে কীভাবে বাড়ির ভিতর এই খুলি, হাড়গোড় এল? উঠছে প্রশ্ন। মামা-মামী র মৃত্যু হয়েছে বহু বছর আগেই। বাবা, মায়ের মৃত্যু পরেও শ্মশানে দেহ দাহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় রা। তবে? দানা বেঁধেছে রহস্য। পুলিস সূত্রে খবর, প্রাথমিক তদন্তের পর তদন্তকারী অফিসার রা মনে করছেন ভিক্টর সম্ভবত তন্ত্র সাধনা করতেন। কিন্তু তাহলেও প্রশ্ন উঠছে এই দেহাংশ কার?

এদিকে ঘটনার পর থেকেই পলাতক ভিক্টর চক্রবর্তী। উদ্ধার হওয়া খুলি, হাড়গোড় নিয়ে গিয়েছে পুলিস। শুরু হয়েছে পলাতক ভিক্টর চক্রবর্তী র খোঁজ। এলাকাবাসীর বক্তব্য, মা-বাবার মৃত্যুর পর থেকে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে ভিক্টর। বাড়িতে সেভাবে কেউ আসা যাওয়া করেন না। ইদানীং পাড়ার লোকদের নজরে খুব একটা আসেননি।

মা হতে চলেছেন শুভশ্রী সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করলেন সেই ছবি

মা হতে চলেছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। আর মাত্র দুমাস পর মা হতে চলেছেন শুভশ্রী নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়াতে সেই ছবি শেয়ার করলেন রাজ আর শুভশ্রী।
নিজের ইজের ইন্সটাগ্রাম প্রফাইল এ শেয়ার করলেন শুভশ্রীর বেবি বাম্প এর ছবি শেয়ার করে চিত্র-দম্পতি জানালেন মা হতে চলেছেন নায়িকা শুভশ্রী।
 

মা হতে চলেছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। টলি কাপল রাজ-শুভশ্রীর  ঘর আলো করে আসছে নতুন আতিথি। কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সুখবর জানিয়েছিলেন টলিপাড়ার পাওয়ার কাপল। এবার তুলে ধরলেন শুভশ্রীর বেবি বাম্পের ছবি। ইনস্টাগ্রামে নিজের আদরের শুভর সঙ্গে সেই ছবি শেয়ার করলেন রাজ।
খবরটা শুভশ্রীর ফ্যানেদের কানে পৌঁছনোর জন্য ফোটো তুললছিলেন রাজ-শুভশ্রী। তবে তাঁদের এই বিশেষ বার্তা 'ইউ আর প্রেগন্যান্ট' কথাটি নজর কেড়েছে আনেক ফ্যানের।


ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের বাংলা মাধ্যমে বলা হয়, সোমবার রাজ-শুভশ্রীর বিয়ের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির দিনে নিজের ইনস্ট্রাগ্রাম অ্যাকাউন্টে শুভশ্রীর বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করেন রাজ।

ছবিতে লক্ষ্য করা যায়, দক্ষিণ ভারতীয় সাবেকি শাড়িতে সাবেকী সাজে রয়েছেন শুভশ্রী, পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন রাজ। ছবিটির ক্যাপশনে রাজ লিখেছেন, ‘তোমার বাইরের ও অন্তরের সৌন্দর্য আমায় বারবার অভিভূত করে। মনে হয় ক্লাউড নাইনে আছি।’


আর মাত্র দুমাস পর মা হতে ছলেছেন শুভশ্রী গাঙ্গুলি, সোমবার (১১ মে) শুভশ্রী তার টুইটার প্রফাইলে লিখেছেন, ‘আমাদের দ্বিতীয় বিবাহবার্ষিকীতে আমরা আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করছি যে, হাত ধরার মতো আমরা আরও একজোড়া হাত পেতে চলেছি এবং ভালোবাসার জন্য আরও একটি হৃদয়। আমি সন্তানসম্ভবা!’


স্বামী ও চিত্রপরিচালক রাজ চক্রবর্তীর সাথে একটি ছবি শেয়ার করেছেন শুভশ্রী। সেই ছবিতেও ঘোষণা রয়েছে তাদের কোল আলো করে নতুন ছোট্টো অতিথি আগমনের।
ছবিতে রাজের পরনের টি-শার্টে লেখা ‘ড্যাড টু বি’, আর শুভশ্রীর পরনের টি-শার্টে লেখা ‘দিস গার্ল ইজ গোয়িং টু বি অ্যা মাম্মি’। সহজেই বোঝা যাচ্ছে, নিজেদের এই সুখবরে দারুণ উচ্ছ্বসিত এই তারকা জুটি।


'সুশান্ত অবসাদগ্রস্ত ছিল না'' সুশান্ত কে নিয়ে প্রথম বার মুখ খুললেন অঙ্কিতা লোখান্ডে

বিকাশ বাংলা সংবাদ: সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্য জনক মৃত্যু নিয়ে এবার মুখ খুললেন তাঁর প্রাক্তন বান্ধবী অঙ্কিতা লোখান্ডে। সম্প্রতি রিপাবলিক টিভির লাইভ অনুষ্ঠানে প্রথমবার সুশান্ত কে নিয়ে প্রকাশ্যে কিছু বলেন তার প্রাক্তন বান্ধবী অঙ্কিতা। তিনি স্পষ্ট বলেন সুশান্ত কখনওই মানসিক ভাবে অবসাদগ্রস্ত ছিলেন না।
সুশান্ত সিং রাজপুত

অঙ্কিতাকে প্রকাশ্যেই বলতে শোনা যায়-
''সুশান্তকে যেভাবে বারবার মানসিক অবসাদগ্রস্ত বলা হচ্ছে, সেটা সবথেকে বড় ভুল শব্দ। কোনওভাবেই এটা সত্যি হতে পারে না। কোনও ঘটনায় সুশান্তের সাময়িক মন খারাপ হতে পারে, তাকে মানসিক অবসাদ বলা যায় না। মানসিক অবসাদ শব্দটা অনেক বড় শব্দ। কোনও কারণ ছাড়াই কীভাবে কেউ কাউকে মানসিক অবসাদগ্রস্ত বলতে পারেন?''
বেশকিছুটা উত্তেজনার বশবর্তী হয়েই অঙ্কিতাকে এই জাতীয়  মন্তব্য করতে শোনা গেল-
সুশান্ত আঙ্কিতা লোখান্ডে
রিপাবলিক টিভির প্রতিবেদন অনুসারে অঙ্কিতা লোখান্ডে বলেন-
''যখন আমি প্রথম শুনলাম ও আত্মহত্য করেছে, বিষয়টা আমি মানতে পারিনি। এটা বিশ্বাস করতে আমার বেশ কিছুটা সময় লেগেছে। সুশান্ত সেইধরনের ছেলেই ছিল না, যে কোনও কিছুতে মন খারাপ করে এত বড় পদক্ষেপ নেবে। আমরা যখন একসঙ্গে থাকতাম, তখন আরও অনেক কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি আমরা। সুশান্তের ঘরের বিভিন্ন ভিডিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছিল। অনেকেই বলছেন এটা আত্মহত্যা বললেও আমি বিশ্বাস করিনি। সুশান্ত ডায়েরি লিখতে ভালো বাসতো, আমরা যখন সম্পর্কে ছিলাম, তখন ও লিখেছিল আগামী ৫ বছর পর ও নিজেকে কোথায় দেখতে চায়। আর ও সেই জায়গায় নিজেকে পৌঁছে নিয়ে গিয়েছিলো অনেকেই ওকে দিমেরুর মানুষ বলছেন। আমি জোর গলায় বলতে পারি, ও মানসিক অবসাদগ্রস্ত ছিল না, সকলেই মনে করছেন, তাঁরা সুশান্তকে জানেন, এটাই কষ্ট দিচ্ছে, ও খুবই আবেগপ্রবণ ছিল, একেবারে ছোটো শিশুদের মতো, ও বলত ও চাষাবাদ করবে, আর কিছুই না হলে শর্টফিল্ম করবে, মানসিকভাবে ভেঙে পড়ার  মতো ছেলে ও কখনওই ছিল না।"

বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই, ২০২০

SBI এর ATM এ শুরু হতে চলেছে ১০ টি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ পরিসেবা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে

দেশজুড়ে এক কোঠীণ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে করুণা ভাইরাস এর কারণে, আর এই ভোয়াণক পরিস্থিতি তে মানুষ ভিশন রকম ভয় পাছে ব্যাংকে যেতে, তাই এরম এক পরিস্থিতি তে SBI তাদের সকল গ্রাহকদের জন্য সুরু করতে চলেছে ১০ টি নতুন পরিসেবা, যা পাওয়া যাবে তাদের ATM  গুলি থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে

SBI এর ATM এ শুরু হতে চলেছে ১০ টি বিশেষ গুড়ূত্বপূর্ণ পরিসেবা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে

টাকা তোলা বা ব্যালেন্স  চেক করা ছাড়াও এখন থেকে SBI এর ATM এ শুরু হতে চলেছে এই ১০ টি বিশেষ গুড়ূত্বপূর্ণ পরিসেবা -

১) আয়কর জমা দেওয়া - এবার আপণী আপনার ATM CARD এর মারফৎ আয়কর অর্থাৎ আডভাণস টাক্স, SELF ASSESSMENT TAX ইত্যাদি জমা দিতে পারবেন।ACCOUNT থেকে টাকা কাটার পর CIN NO দেওয়া হবে, এর ২৪ ঘণ্টা পর BANK WEB SITE থেকে লগ ইন করে চালান বের করে ণীটে পারবেন গ্রাহক রা।

২) FD সুরু করা - এখন থেকে ব্যাংক এ লাইন না দ্বিয়ে ATM এর মাধ্যমে প্রয়োজনীয় FD সুরু করতে পারবেন খুব সহজেই ।
এবার থেকে এটিএম স্ক্রিন এই দেয়া থাকবে কতদিনের জন্য কোটো টাকাড় এফডি করতে চান, ব্যাস আর কী আপনার পছন্দসই এফডি করতে পারবেন এখন ATM থেকে।

৩) LIFE INSURANCE DEPOSIT - LIFE INSURANCE এর টাকা জমা দেওয়ার সুবিধাও আখোণ পাবেন SBI এর ATM থেকে ।

৪) পার্সোনাল লোণ এর জন্য ও সহজেই এপলাই করার সহজ সুযোগ এখন পাবেন  SBI ATM থেকে ।

উপরের সুবিধা গুলি ছাড়াও এখন থেকে জেকোণো ACCOUNT এ টাকা পাঠাণো , টাকা জমা, যেকোনো রকম বিল যেমন বিদ্যুৎ বিল, টেলিফোন বিল, গ্যাস বিল ইত্যাদি জমা দিতে পারবেন SBI এর ATM থেকে।



জেনে নিন কোরান এর পাঁচটি বিস্ময়কর তথ্য - এই পৃথিবী তথা মহাবিশ্ব নিয়ে

জেনে নিন কোরান এর পাঁচটি বিস্ময়কর তথ্য - এই পৃথিবী তথা মহাবিশ্ব নিয়ে

 
পবিত্র কোরান হল সত্যিই একগুচ্ছ বিস্ময়ের ভাণ্ডার। অক্ষর থেকে শব্দ, শব্দ থেকে বাক্য জাণা-অজানা সব জ্ঞান-বিজ্ঞানের উন্মুক্ত বিশ্বকোষ। তেমনি আমরা যে গ্রহে বসবাস করি, অর্থাৎ পৃথিবী এ সম্পর্কেও কোরআনে রয়েছে বৃহৎ তথ্যভাণ্ডার। মহান আল্লা বলেন, বিশ্বাসীদের জন্য এই পৃথিবীতে অসংখ্য নিদর্শনাবলি রয়েছে। (সুরা : জারিয়াত, আয়াত : ২৩)

5 MISTIOUS FACT FROM KORAN SARIF
মহান আল্লাহ তার সৃষ্টিতত্ত্ব বিশ্লেষণ নিঃসন্দেহে একটি বড় ইবাদত। পবিত্র কোরআনে তার মানুষকে নিজের সৃষ্টি ও আশপাশের সৃষ্টিজগতের প্রতি অনুসন্ধিৎসু  দৃষ্টিদানের নির্দেশ দেয়া হঈয়াছে। আর পবিত্র কোরআন সেই কারণে অদ্বিতীয় নির্ভরযোগ্য উৎস। চলুন দেখি মহাগ্রন্থ কোরান এ পৃথিবী ও মহাকাশবিষয়ক কী কী বিস্ময়কর তথ্য রয়েছে।
তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য পাঁচটি বিস্ময়কর তথ্য এখানে উল্লেখ করা হলো—

বিস্ময়কর তথ্য ১ - পৃথিবীর সূচনা মহাবিস্ফোরণের মাধ্যমে

খুব বেশি দিন আগের কথা নয় যে মানুষ জানতে পেরেছে মহাবিশ্বের সূচনা এক মহাবিস্ফোরণের মাধ্যমেই ঘটেছে।  আজ থেকে প্রায় এক হাজার ৫০০ বছর আগে বিশ্বস্রষ্টা তাঁর মহাগ্রন্থ আল-কোরানে এই ব্যাপারে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। ‘অবিশ্বাসীরা কি দেখে না যে সপ্তাকাশ ও পৃথিবী পুঞ্জীভূত হয়ে ছিল। অতঃপর আমি উভয়টি এক মহাবিস্ফোরণের মাধ্যমে সূচনা করেছি।’ (সুরা : আম্বিয়া, আয়াত : ৩০)

বিস্ময়কর তথ্য ২ - মহাকাশ সৃষ্টির আগে পৃথিবীর সৃষ্টি

মহাকাশ নাকি পৃথিবী? আকাশের গ্রহ-নক্ষত্র নাকি পৃথিবীর গাছপালা কোনটি আগে সৃষ্টি হয়েছে? উত্তর খুঁজতে হলে বেশি দূর যেতে হবে না। আপনার ঘরের পবিত্র কোরান টীকে হাতে নিন। তাতে চোখ বুলালেই দেখতে পাবেন, ‘আপনি বলুন, সত্যিই কি তোমরা সেই মহাপ্রভুকে অস্বীকার করছ! যিনি পৃথিবীকে মাত্র দুদিনে সৃষ্টি করেছেন এবং তার অংশীদার নির্ধারণ করছেণ ? তিনি তো সমস্ত জগতের প্রতিপালক। যিনি পৃথিবীতে তার উপরের স্থানে পাহাড় স্থাপন করেছেন এবং মাটীর ভিতরাংশ বরকতপূর্ণ করেছেন আর ভূগর্ভে জোঠেষ্ট খাদ্যদ্রব্য মজুদ করেছেন মাত্র চার দিনে। সবার জন্য সমানভাবে। সুতরাং তিনি আকাশের দিকে মনোনিবেশ করলেন আর তা ছিল ধোঁয়াশাচ্ছন্ন। (সুরা : ফুসিসলাত, আয়াত : ৯-১১) এখানে পর্যায়ক্রমে প্রথমে পৃথিবী সৃষ্টি এরপর ভূগর্ভস্থ বিষয় সমূহের আলোচনার পর আসমানের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

বিস্ময়কর তথ্য ৩ - ক্রমে সংকীর্ণ হয়ে আসছে পৃথিবীর পরিধি

পদার্থবিজ্ঞানীদের গবেষণামতে পৃথিবী তার জোণ্মলগ্ন থেকে এ পর্যন্ত মাটীর তলার জলের এক-চতুর্থাংশ জল হারিয়েছে। বিজ্ঞানীদের ধারণামতে পৃথিবীর ভার বা ওজন (৫,৯৭২,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০) অর্থাৎ ৫ সেক্সটিলিয়ন ৯৭২ কুইন্টিলিয়ন। গবেষণায় এটাই প্রমাণিত হয়েছে যে প্রতিবছর পৃথিবী তার মোট ওজন থেকে ৫০০ টন ওজন হারাচ্ছে। এ ছাড়া অক্সিজেনের ভাগ প্রতিনিয়ত কমে আসাও হালের বিজ্ঞানীদের কাছে চীণতার বিষয়। যা থেকে তারা নিশ্চিত হয়েছে যে পৃথিবীর পরিধি ক্রমেই সংকুচিত হয়ে আসছে। অন্যদিকে মহান আল্লা বলেন, ‘তারা কি দেখে না আমি ভূপৃষ্ঠের পরিধি ক্রমেই সংকুচিত করে আনছি, এর পরও কি তারাই বিজয়ী!’ (সুরা : আম্বিয়া, আয়াত : ৪৪)

বিস্ময়কর তথ্য ৪ -পৃথিবী দ্রুতগতিতে ছুটে চলেছে

পবিত্র কোরানে পৃথিবী স্থির কিংবা সূর্যের পাশে ঘূর্ণমান কোনোটিই বলা হয়নি। বরং এ বিষয়ে পবিত্র কোরানে যা এসেছে তার সারকথা হলো, পৃথিবী আপন কক্ষপথে দ্রুতগতিতে সাঁতার কাটার মতো ঢেউ খেলে ছুটে চলেছে। বিজ্ঞানীদের মতে, পৃথিবীর চলন প্রকৃতি প্রধানত দুই ধরনের। প্রথমত, পৃথিবীর নিজস্ব ঘূর্ণায়ন যা ঘণ্টায় প্রায় এক হাজার ৬০০ কিলোমিটার। পবিত্র কোরআনে মহান আল্লা বলেন, ‘মহান আল্লাহ যিনি আসমান জমিন যথাযথভাবে সৃষ্টি করেছেন এবং দিনকে রাতের ওপর এবং রাতকে দিনের ওপর আচ্ছাদিত করেন।’ (সুরা : জুমার, আয়াত : ৫) আর এ কথা শিরোধার্য, কোনো বৃত্ত আকৃতির জিনিসকে অনুরূপ অন্য কোনো জিনিস দ্বারা বারবার আচ্ছাদিত করার জন্য, তা ঘূর্ণমান হওয়ার বিকল্প নেই। দ্বিতীয়ত, সূর্যকে ঘিরে পৃথিবীর সন্তরণ। বহুকাল যাবৎ মানুষ এ ধারণা পোষণ করে আসছে যে পৃথিবী সূর্যের পাশে ঘূর্ণমান। তবে খুব সাম্প্রতিক সময়ে মহাকাশ গবেষকরা নিশ্চিত করেছেন যে সূর্যকে ঘিরে পৃথিবীর চলার ধরনটাকে ঘূর্ণন শব্দে ব্যাখ্যা করা যথাযথ নয়। বরং পৃথিবীসহ আরো অনেক গ্রহ উপগ্রহ সর্বদা সূর্যকে ঘিরে সাঁতার কাটার মতো ওপর-নিচ ঢেউ তুলে সম্মুখপানে অগ্রসর হচ্ছে। মহান আল্লা পবিত্র কোরানে চাঁদ, সূর্য ও পৃথিবীর আলোচনা টেনে বলেন, প্রত্যেকেই আপন কক্ষপথে সন্তরণ করছে। (সুরা : ইয়াসিন, আয়াত : ৪০)

বিস্ময়কর তথ্য ৫- পৃথিবীর নিচে বিপুল পানির উৎস

টিউবওয়েল থেকে জল তুলছেন কিংবা পাম্পের সাহায্যে। কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন মাটীর নিচের এই বিপুল পরিমাণ জলের উৎস কোথায়? তাহলে জেনে নিন, মহান আল্লা  বলেন, ‘আমি আসমান থেকে পরিমাণমতো পানি বর্ষণ করি, এরপর তা ভূগর্ভে সংরক্ষণ করে রাখি।’ (সুরা : মুমিনুন, আয়াত : ১৮)

সংগৃহীত : মুফতি সাআদ আহমাদ এর লেখা থেকে, শিক্ষক, ইমদাদুল উলুম রশিদিয়া মাদরাসা, ফুলবাড়ী গেট, খুলনা।

বাহুবলীর পরিচালক এস এস রাজামৌলী ও তাঁর গোটা পরিবারের করোনা সংক্রমণ

বাহুবলীর পরিচালক এস এস রাজামৌলী ও তাঁর গোটা পরিবারের করোনা সংক্রমণ

এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বাহুবলীর পরিচালক এস এস রাজামৌলীসহ পরিবারের

এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বাহুবলীর পরিচালক এস এস রাজামৌলীসহ পরিবারের সবাই। হোম কোয়ারেন্টাইনেই থাকবেন রাজামৌলী। বুধবার টুইটারে এসব জানান প্রখ্যাত পরিচালক।

এস এস রাজামৌলী

রাজামৌলী জানান, কয়েকদিন যাবত জ্বরে ভুগছিলেন তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা

রাজামৌলী জানান, কয়েকদিন যাবত জ্বরে ভুগছিলেন তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা। এখন অবশ্য জ্বর কমেছে। কিন্তু সেই সময় করা কোভিড টেস্টের যেই ফলাফল এসেছে যাতে দেখা যাচ্ছে শরীরে আছে করোনা। যেহেতু তেমন কোনও লক্ষণ নেই, চিকিৎসকরা পরামর্শ দিয়েছেন বাড়িতে কোয়ারেন্টাইন করার বলেই জানান রাজামৌলী। এ কারনে সতর্কতা বসত হাসপাতালে ভর্তি হননি তিনি।


www.bikashbagla.com


করোনা হওয়ার ঠিক আগে  RRR বলে একটি ছবির শুটিং শুরু করছিলেন রাজামৌলী

করোনা হওয়ার ঠিক আগে  RRR বলে একটি ছবির শুটিং শুরু করছিলেন রাজামৌলী। তামিল, তেলেগু ও হিন্দি, তিনটি ভাষতে তৈরী হচ্ছে RRR ছবি। আছেন জুনিয়র এনটিআর, রাম চরণ, অজয় দেবগন ও আলিয়া ভাট। 
দুই স্বাধীনতা সংগ্রামীর জীবনগাথা হল RRR। ৪০০ কোটি টাকা বাজেটের এই ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা আগামী বছরের ৮ জানুয়ারি। ছবির ৭৫ শতাংশ শুটিং শেষ। বাকিটা হবে হায়দরাবাদে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে। তারমধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হলেন রাজামৌলী।

দশ বছর পর আবার একসাথে চঞ্চল চৌধুরী, শামীম জামান, আ খ ম হাসান, শাহনাজ খুশি ও বৃন্দাবন দাস - নাটক ‘ট্রাম কার্ড’

শেষ জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘হাড়কিপ্টা’ নাটকে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল চঞ্চল চৌধুরী, শামীম জামান, আ খ ম হাসান, শাহনাজ খুশি ও বৃন্দাবন দাসকে। এরপর টানা দশ বছর কোনো নাটকে একসঙ্গে কাজ করতে দেখা যায়নি তাদের। অভিমান করেই তারা আর একসঙ্গে অভিনয় করেননি শেষ পর্যন্ত  তাদের সেই অভিমান ভাঙলো।

একসঙ্গে অভিনয় করলেন ‘ট্রাম কার্ড’ নাটকে।



বৃন্দাবন দাসের রচনায় নাটকটি নির্মাণ করেছেন শামীম জামান। এরা ছাড়াও অভিনয় করেছেন মৌসুমী হামিদ, আরফান আহমেদসহ অনেকে। নাটকটি এনটিভিতে ইদে প্রচারিত হবে।

এ প্রসঙ্গে শামীম জামান বলেন, "একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়। ছোট সেই ভুলটি আমাদের এক দশক আলাদা করে রাখে। সাত মাস আগে সিদ্ধান্ত নিই, মান-অভিমান পুষে রাখলে চলে না। আমাদের এই টিমের মধ্যে বোঝাপড়াটা ভালো ছিল।"

শামিন জামান আরো বলেন, "সেই বোঝাপড়াটা ফিরিয়ে আনতে সবার সঙ্গে আবার যোগাযোগ করি। অতঃপর এনটিভির জন্য নির্মিত এ ধারাবাহিকের মাধ্যমে অভিমানের অবসান হলো। ফের একত্রে ফ্রেম বন্দী হয়ে বেশ আনন্দ লাগছে।"

‘ট্রাম কার্ড’ নাটকে আভিনয় প্রসঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, "আমাদের দেখা হতো, কথা হতো, একত্রে কাজ করা হয়নি। অনেক দিন পর একসঙ্গে কাজ করতে ভালো লাগছে। আমাদের এই টিমের ‘পত্রমিতালি’, ‘গরুচোর’, ‘ঘরকুটুম’, ‘আলতা সুন্দরী’, ‘সাকিন সারিসুরি’র মতো ‘টাম কাড’ নাটকটিও দর্শক পছন্দ করবেন বলে আশা করছি।"


দীর্ঘদিন একসঙ্গে কাজ না করার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন শাহনাজ খুশিও, তিনি বলেন- " বেশ কিছু কারণে আগের টিমের সঙ্গে কাজ করা হয়নি। অবশেষে একসঙ্গে কাজটি করা হলো। ঈদের পরও আগের মতো একসঙ্গে নতুন নাটকে কাজ করা হবে।"


বৃন্দাবন দাস বলেন- "হাড়কিপ্টা’ নাটকে বহু তারকা কাজ করতেন। তাদের খরচ, আমার ও সালাউদ্দিন লাভলুর সম্মানী নিয়ে ভুল-বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছিল। দশ বছর পর শামীম আবেগঘন একটা এসএমএস পাঠাল, তখন মনে হলো কাজের জায়গায় আমাদের এক হওয়া দরকার। সেই জায়গা হলো ‘ট্রাম কার্ড’। আশা করবো নাটকটি দর্শকদের ঈদে বিনোদনের খোড়াক জোগাবে।"

বুধবার, ২৯ জুলাই, ২০২০

শুরু হবে করোনা টিকার ট্রায়াল, ভারতের পাঁচ যায়গায় সুরু হোতে চলেছে এই পরীক্ষা

শুরু হবে করোনা টিকার ট্রায়াল, ভারতের পাঁচ যায়গায় সুরু হোতে চলেছে এই পরীক্ষা 

দেশের এবং সারা বিশ্বের জন্য সুখবর নিয়ে এলো অক্সফোর্ড (OXFORD) এর করুনা টিকা গবেষণা এর ফলাফল। 

করুণা প্রতিষেধক
ব্রিটিশ পত্রিকা ‘দি ল্যানসেট’ (The Lancet) এর খবর আণূজায়ী ৯০ শতাংশ স্বেচ্ছাসেবকের শরীরেই করোনা-রোধী শক্তিশালী অ্যান্টিবডি এবং টি-সেল তৈরি করতে সফল হয়েছে এই টিকা। যা টিকাটীর সফল হবার সুফল প্রমান করে । 

অভূতপূর্ব এই সফলতার খতিয়ান নজরে আসার পরই ভারতে এই টীকার পরীক্ষা মূলোক প্রয়োগের তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছিল এটির তৈরির দায়িত্বে থাকা বিশ্বের বৃহত্তম টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া (Serum Institute of India)। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার (DCGI) কাছে অনুমতিও চাওয়া হয়েছে সিরাম ইনস্টিটিউটের পক্ষ থেকে। অবশেষে ছাড়পত্র মিলেছে। দেশের মোট পাঁচটি জায়গায় করা হবে অক্সফোর্ডের করোনা টিকার (ডিএনএ ভেক্টর ভ্যাকসিন) হিউম্যান ট্রায়াল অর্থাৎ মানব জাতীর উপর পরীক্ষা । মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছে কেন্দ্রের বায়োটেকনোলজি বিভাগ (DBT)।

 ভারতের বায়োটেকনোলজি বিভাগের  সচিব রেণু স্বরূপ সংবাদ সংস্থা P. T. I. কে বলেন - "দেশের পাঁচ জায়গায় শুরু হবে এই প্রতিষেধকের ট্রায়াল। মোট ১,০০০ জন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে এই প্রতিষেধকের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হবে।"

কীভাবে সরষে ইলিস রান্না করবেন - সরষে ইলিশ রান্নার রেসিপি

সরষে ইলিশ রান্নার পদ্ধতি- বন্ধুরা ইলিশ মাছ খেতে কোন বাঙালি না ভালো বাসে বলুন ? আর তাই যদি হয় সরষে দিয়ে ইলিশ তাহলে তো যে কোনও বাঙ্গালির জিভে ...