Entertainment-news লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান
Entertainment-news লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান

রবিবার, ২ আগস্ট, ২০২০

টলিউড বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাইমা সেন এর অন্তর্বাস পরা ছবি - রাইমা সেন এর বোল্ড ছবি

টলিউড (Tollywood) ও বলিউড (Bollywood) এর অন‍্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাইমা সেন (Raima Sen) সম্প্রতি তার বোল্ড লুক ছবি পোস্ট করলেন তার ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইল পেজ-এ।

রাইমা সেন যার দিদিমা হলেন মহানায়িকা সুচিত্রা সেন যিনি বাংলা সিনেমার অন্যতম শ্রেষ্ট এবং কালজয়ী একজন অভিনেত্রী এবং মা হলেন স্বনামধন্য অভিনেত্রী মুনমুন সেন।

হিন্দি, বাংলা ছাড়া দক্ষিণেও পৌঁছে গিয়েছে রাইমার ম‍্যাজিক। গত বছরে একটি তামিল ছবিতে অভিনয়  করেছেন রাইমা সেন।  বাংলায় তাঁর সর্বশেষ ছবি ‘দ্বিতীয় পুরুষ', সৃজিত মুখার্জির পরিচালনায়, যেটি সুপারহিট বাংলা সিনেমা ২২ শে  শ্রাবন এর  সিক্যুয়াল।


রাইমা সেন এর ইন্সতাগ্রাম ফীড

জ্বলন্ত সিগারেট ঠোঁটে নিয়ে শুয়ে আছেন রাইমা


ইন্সতাগ্রাম এ নিজের বোল্ড ছবি পোস্ট করলেন রাইমা সেন

 

 দেখে নিন রাইমা সেন এর ইন্সতাগ্রাম ফটোশুট এর ভাইরাল ভিডিও


৩৪ হাজারের বেশি লাইক পড়েছে এই ছবিতে। পোস্ট করা মাত্রই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে রাইমার এই ছবিগুলি।

লং বব কাট চুল, ডিপ নেক পোশাকের উপর দিয়ে উঁকি দিচ্ছে রাইমার বক্ষ বিভাজিকা


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেন


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


সিগারেট হাতে চিত্রনায়িকা


অন্তর্বাস পরিহিত রাইমা সেনের বোল্ড ছবি


উকি দিচ্ছে উম্মুক্ত বক্ষ বিভাজিকা

[full_width]
 

শনিবার, ১ আগস্ট, ২০২০

DIL BECHARA REVIEW - জেনে নিন সুশান্ত অভিনিত শেষ ছবি 'দিল বেচারা' র গল্প

অবশেষে ২৪ জুলাই মুক্তি পেল সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Sing Rajput) অভিনিত শেষ ছবি 'দিল বেচারা' (Dil Bechara), আজ আমরাো 'দিল বেচারা ছবিটির গল্প' নিয়ে আলচোনা করব।

'দিল বেচারা' হল সেই ছবি যা দেখার জন্য  'সুশান্ত সিং রাজপুতের' অগুনিত ভক্ত ও সিনেমা প্রেমিরা এতদিন আগ্রহে ভরে অপেক্ষা করছিলেন,  অন্যান্য ছবির থেকে 'দিল বেচারা' দেখার জন্য যে  আলাদা আবেগ কাজ করবে সুশান্ত সিং রাজপুত এর ভক্ত ও সিনেমা প্রেমিদের মনে তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। 

দিল বেচারা (বাংলা অসহায় হৃদয় ) চলচ্চিত্রটি  জন গ্রিনের ২০১২ সালের উপন্যাস দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস  এর হিন্দি চলচ্চিত্র রূপান্তর, মুখেশ ছাবড়ার (Mukhesh Chabra) পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র এবং সুশান্ত সিং রাজপুত এর অভিনিত শেষ চলচ্চিত্র, যিনি চলচ্চিত্র মুক্তি পাওয়ার আগে ২০২০-এ ১৪ই জুন মারা গিয়েছিলেন। নায়িকা হিসাবে সঞ্জনা সংঘী ( Sanjana Sanghi ) এর অভিনিত প্রথম সিনেমা হল দিল বেচারা।
হ্যাঁ, ছবি দেখার চাইতে 'দিল বেচারা'তে সুশান্তকে দেখার ইছেতাই যেন নিজের অজান্তেই মনের মধ্যে অগ্রাধিকার পায়। ছবির শুরুর দিকে কিজি বসুর (সঞ্জনা সঙ্ঘী) মুখ থেকে  'এক থা রাজা, এক থি রানি। দোনো মর গ্যায়ে, খতম কাহানি, পর অ্যায়সি কাহানিয়া কিসকো আচ্ছি নেহি লাগতি', ডায়ালগটা শুনে কিছুটা চমকে জেতেই হয়, তবে গুল্পটি আরো জমে ওঠে যখন ম্যানির উপস্থিতি ঘটে কিজি বসু এর জীবনে। নাহ... কিজির গল্প কিন্তু শেষ হতে দেননি ম্যানি। ক্যান্সারে আক্রান্ত, বাবা-মাকে ঘিরে চলা কিজির 'বোরিং', মৃতপ্রায় জীবনে নাতুন করে আশার আলোর সঞ্চার করেন ম্যানি ওরফে ইম্যানুয়েল রাজকুমার জুনিয়র ওরফে সুশান্ত সিং রাজপুত। নিজের জন্য নয়, প্রেমিকা,বন্ধু কিজির ইচ্ছাপূরণ করতেই যেন নতুন করে শুরু হয় ম্যানির পথ চলা। কিজি বসুর সাথে দেখা হবার পর ম্যানি যেন তার নিজের  জীবনেও নতুন আলোর হদিস পায়।

'' আমিও অনেক বড় বড় স্বপ্ন দেখি, তবে সেগুলো পূরণ করতে ইচ্ছা করে না'', কিজির বাবাকে এরকমি বলে ছিল সুশান্ত, থুরি ম্যানি।

কিজি আর ম্যানি'র জীবনের মিষ্টি আবেগঘন একটা স্বল্প সময়ের প্রেমের গল্প হল এই 'দিল বেচারা' । তবে এই স্বল্প সময়ে কিভাবে দাপিয়ে বেড়ানো যায়, জীবনকে উপভোগ করে বেঁচে থাকা যায়, জীবনের শেষ ছবিতে তা আরও একবার  শিখিয়ে দিয়ে গেলেন সুশান্ত। সত্যিই তো ''জন্ম কবে, মৃত্যু কবে, তা আমরা ঠিক করতে পারি না, তবে কীভাবে বাঁচবো সেটা তো  আমরা ঠিক করতে পারি''। 

“Janam kab lena hai aur marna kab hai yeh hum decide nehi kar sakte, lekin kaise jeena hai woh toh hum decide kar sakte hai”

দিল বেচারা চলচ্চিত্রটিতে কিজি ও ম্যানি দুজনেই জানে যে- মৃত্যু তাঁদের দরজার বাইরে দাঁড়িয়ে কড়া নাড়ছে। তবু সেই কড়া নাড়ার শব্দকে এড়িয়ে জীবনের প্রতিটা মুহূর্ত কিভাবে উপভোগ করতে হয় সেটাই শিখিয়ে দিয়ে গেলেন দিল বেচারার ম্যানি। 


ছবির শেষের দিকে ম্যানির লেখা চিঠিতে ''ইয়ে রাজা তো মর গ্যায়া, পর মেরি রানি আভি জিন্দা হ্যায়, আর তবতক মেরি কাহানি ভি জিন্দা হ্যায়''। এই ডায়ালগটাতেও যেন বাস্তবের সঙ্গে অদ্ভুত মিল।

ছবিতে সুশান্ত এর চরিত্রটি যেন মনে করিয়ে দেয় আনান্দ ছবির রাজেশ খান্না (Rajesh Khana) কে।
যাইহোক  সুশান্ত সিং রাজপুতের পাশাপাশি ছবিতে অনবদ্য অভিনয় করেছেন কিজি বসু ওরফে সঞ্জনা সঙ্ঘী। 'রকস্টার', 'হিন্দি মিডিয়াম'-এর সেই ছোট্ট সঞ্জনা যে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অভিনয়েও যে পরিণত হয়েছেন তা 'দিল বেচারা' তে তার অভিনয় দেখলেই বোঝা যায়। সুশান্তময় এই ছবিতে আলাদা করে দর্শকদের মনে জায়গা করে নেবে সঞ্জনা সঙ্ঘী এর অভিনয়।   

ছবিটিতে আলাদা করে মন ছুঁয়ে যায় কিজির মা-বাবার ভূমিকায় স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের অভিনয়, বলার অপেক্ষা রাখেনা ছবিটিকে পূর্ণতা দিতে তাঁদের ভূমিকা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। 

অতিথি শিল্পীর ভূমিকায় ভাল অভিনয় করেছেন সইফ আলি খান (Saif Ali Khan)এ আর রহমান  (A R Rahaman) এর মিউজিক আলাদা করে দর্শকদের মণ ছূয়ে যেতে বাধ্য। 

চিত্রনাট্য ছোটখাটো কিছু ফাঁক ফোঁকর থাকলেও সবকিছুই ঢাকা পড়ে গিয়েছে কান্না-হাসি-মজা তে ভরা দিল বেচারা ছবির গল্পে।

[full_width]

শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০

মা হতে চলেছেন শুভশ্রী সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করলেন সেই ছবি

মা হতে চলেছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। আর মাত্র দুমাস পর মা হতে চলেছেন শুভশ্রী নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়াতে সেই ছবি শেয়ার করলেন রাজ আর শুভশ্রী।
নিজের ইজের ইন্সটাগ্রাম প্রফাইল এ শেয়ার করলেন শুভশ্রীর বেবি বাম্প এর ছবি শেয়ার করে চিত্র-দম্পতি জানালেন মা হতে চলেছেন নায়িকা শুভশ্রী।
 

মা হতে চলেছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। টলি কাপল রাজ-শুভশ্রীর  ঘর আলো করে আসছে নতুন আতিথি। কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সুখবর জানিয়েছিলেন টলিপাড়ার পাওয়ার কাপল। এবার তুলে ধরলেন শুভশ্রীর বেবি বাম্পের ছবি। ইনস্টাগ্রামে নিজের আদরের শুভর সঙ্গে সেই ছবি শেয়ার করলেন রাজ।
খবরটা শুভশ্রীর ফ্যানেদের কানে পৌঁছনোর জন্য ফোটো তুললছিলেন রাজ-শুভশ্রী। তবে তাঁদের এই বিশেষ বার্তা 'ইউ আর প্রেগন্যান্ট' কথাটি নজর কেড়েছে আনেক ফ্যানের।


ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের বাংলা মাধ্যমে বলা হয়, সোমবার রাজ-শুভশ্রীর বিয়ের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির দিনে নিজের ইনস্ট্রাগ্রাম অ্যাকাউন্টে শুভশ্রীর বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করেন রাজ।

ছবিতে লক্ষ্য করা যায়, দক্ষিণ ভারতীয় সাবেকি শাড়িতে সাবেকী সাজে রয়েছেন শুভশ্রী, পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন রাজ। ছবিটির ক্যাপশনে রাজ লিখেছেন, ‘তোমার বাইরের ও অন্তরের সৌন্দর্য আমায় বারবার অভিভূত করে। মনে হয় ক্লাউড নাইনে আছি।’


আর মাত্র দুমাস পর মা হতে ছলেছেন শুভশ্রী গাঙ্গুলি, সোমবার (১১ মে) শুভশ্রী তার টুইটার প্রফাইলে লিখেছেন, ‘আমাদের দ্বিতীয় বিবাহবার্ষিকীতে আমরা আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করছি যে, হাত ধরার মতো আমরা আরও একজোড়া হাত পেতে চলেছি এবং ভালোবাসার জন্য আরও একটি হৃদয়। আমি সন্তানসম্ভবা!’


স্বামী ও চিত্রপরিচালক রাজ চক্রবর্তীর সাথে একটি ছবি শেয়ার করেছেন শুভশ্রী। সেই ছবিতেও ঘোষণা রয়েছে তাদের কোল আলো করে নতুন ছোট্টো অতিথি আগমনের।
ছবিতে রাজের পরনের টি-শার্টে লেখা ‘ড্যাড টু বি’, আর শুভশ্রীর পরনের টি-শার্টে লেখা ‘দিস গার্ল ইজ গোয়িং টু বি অ্যা মাম্মি’। সহজেই বোঝা যাচ্ছে, নিজেদের এই সুখবরে দারুণ উচ্ছ্বসিত এই তারকা জুটি।


বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই, ২০২০

দশ বছর পর আবার একসাথে চঞ্চল চৌধুরী, শামীম জামান, আ খ ম হাসান, শাহনাজ খুশি ও বৃন্দাবন দাস - নাটক ‘ট্রাম কার্ড’

শেষ জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘হাড়কিপ্টা’ নাটকে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল চঞ্চল চৌধুরী, শামীম জামান, আ খ ম হাসান, শাহনাজ খুশি ও বৃন্দাবন দাসকে। এরপর টানা দশ বছর কোনো নাটকে একসঙ্গে কাজ করতে দেখা যায়নি তাদের। অভিমান করেই তারা আর একসঙ্গে অভিনয় করেননি শেষ পর্যন্ত  তাদের সেই অভিমান ভাঙলো।

একসঙ্গে অভিনয় করলেন ‘ট্রাম কার্ড’ নাটকে।



বৃন্দাবন দাসের রচনায় নাটকটি নির্মাণ করেছেন শামীম জামান। এরা ছাড়াও অভিনয় করেছেন মৌসুমী হামিদ, আরফান আহমেদসহ অনেকে। নাটকটি এনটিভিতে ইদে প্রচারিত হবে।

এ প্রসঙ্গে শামীম জামান বলেন, "একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়। ছোট সেই ভুলটি আমাদের এক দশক আলাদা করে রাখে। সাত মাস আগে সিদ্ধান্ত নিই, মান-অভিমান পুষে রাখলে চলে না। আমাদের এই টিমের মধ্যে বোঝাপড়াটা ভালো ছিল।"

শামিন জামান আরো বলেন, "সেই বোঝাপড়াটা ফিরিয়ে আনতে সবার সঙ্গে আবার যোগাযোগ করি। অতঃপর এনটিভির জন্য নির্মিত এ ধারাবাহিকের মাধ্যমে অভিমানের অবসান হলো। ফের একত্রে ফ্রেম বন্দী হয়ে বেশ আনন্দ লাগছে।"

‘ট্রাম কার্ড’ নাটকে আভিনয় প্রসঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, "আমাদের দেখা হতো, কথা হতো, একত্রে কাজ করা হয়নি। অনেক দিন পর একসঙ্গে কাজ করতে ভালো লাগছে। আমাদের এই টিমের ‘পত্রমিতালি’, ‘গরুচোর’, ‘ঘরকুটুম’, ‘আলতা সুন্দরী’, ‘সাকিন সারিসুরি’র মতো ‘টাম কাড’ নাটকটিও দর্শক পছন্দ করবেন বলে আশা করছি।"


দীর্ঘদিন একসঙ্গে কাজ না করার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন শাহনাজ খুশিও, তিনি বলেন- " বেশ কিছু কারণে আগের টিমের সঙ্গে কাজ করা হয়নি। অবশেষে একসঙ্গে কাজটি করা হলো। ঈদের পরও আগের মতো একসঙ্গে নতুন নাটকে কাজ করা হবে।"


বৃন্দাবন দাস বলেন- "হাড়কিপ্টা’ নাটকে বহু তারকা কাজ করতেন। তাদের খরচ, আমার ও সালাউদ্দিন লাভলুর সম্মানী নিয়ে ভুল-বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছিল। দশ বছর পর শামীম আবেগঘন একটা এসএমএস পাঠাল, তখন মনে হলো কাজের জায়গায় আমাদের এক হওয়া দরকার। সেই জায়গা হলো ‘ট্রাম কার্ড’। আশা করবো নাটকটি দর্শকদের ঈদে বিনোদনের খোড়াক জোগাবে।"

কীভাবে সরষে ইলিস রান্না করবেন - সরষে ইলিশ রান্নার রেসিপি

সরষে ইলিশ রান্নার পদ্ধতি- বন্ধুরা ইলিশ মাছ খেতে কোন বাঙালি না ভালো বাসে বলুন ? আর তাই যদি হয় সরষে দিয়ে ইলিশ তাহলে তো যে কোনও বাঙ্গালির জিভে ...