করোনা প্রতিরোধের কিছু গুরুত্বপূর্ণ উপায় - কি বলছেন ভাইরাস বিশেষজ্ঞরা - বিকাশবাংলা - Bikash Bangla

সরকারি চাকরি, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, রান্নার রেসিপি, সাস্থের খবর, খবর, latest news, new job news, cooking recipe, online income, blogging tutorial, health tips

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০

করোনা প্রতিরোধের কিছু গুরুত্বপূর্ণ উপায় - কি বলছেন ভাইরাস বিশেষজ্ঞরা

বর্তমানে ভারতবর্ষ, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, শ্রীলংকা প্রভৃতি এশিয়ান দেশ গুলি ছাড়াও সারা পৃথিবীতে বিভিন্ন দেশে করোনা ভাইরাস এক ধরণের তাণ্ডব চালাচ্ছে।

এই পরিস্থিতিতে এইসব দেশ গুলিতে এত লোক অসুস্থ হয়ে পড়ছে যে সরকারি হাসপাতাল গুলিতে তিল ধরণের জায়গা ও পাওয়া মুশকিল হয়ে উঠেছে, সাধারণ মানুষের মধ্যে এত পরিমান ভয়ের সঞ্চার হয়েছে যে তারা হাসপাতাল, নার্সিংহোম, ডাক্তার বাবুদের চেম্বারে যেতেও ভয় পাচ্ছেন। বাড়ির করোও  জ্বর বা কিছু হলে পাশের বাড়ির লোকজন অবধি ভয়ে এগিয়ে আসছেন না, পাছে তাদেরও এই ভয়াল রোগ মানে করোনা হয়ে যায়।
নোভেল কোরোনাভাইরাস। প্রতীকী চিত্র।

আসুন জেনে নেই কি করলে করোনা ভাইরাস কে আটকানো সম্ভব,

ভাইরাস বিশেষজ্ঞ দের মতে -

১. জ্বর বা সর্দি হলেই তা করোনা বা COVID-19 নয়, আপনার বাড়ির কারুর যদি জ্বর অথবা সর্দি কাশি হয় তবে তার প্রাথমিক চিকিৎসা বাড়িতে থেকেই করুন, বাড়িতে সাধারণ জ্বর বা সর্দি হলে যেই সকল ঔষধ যেমন প্যারাসিটামল, কফ সিরাফ দিন।

২.  গরম জলে কুলকুচি বা গারগেল করুন তাতে ভাইরাস যদি আপনার মুখে প্রবেশ করেও থাকে তবে তা বিনষ্ট হবে।

৩. দিনে অন্তত দুইবার মাউথ ওয়াশ দিয়ে মুখ ধোবেন। এতে মুখ অথবা নাক দিয়ে ভাইরাস প্রবেশ করলে তা বিনষ্ট হয়ে যাবে।

৪. কোথাও বেরোলে মাস্ক অবশ্যই পড়বেন। কারণ করোনা ভাইরাস বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আমাদের মুখ এবং নাকের মাধ্যমে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে।

৫. সব সময় সোশ্যাল ডিস্টেন্স বজায় রাখার চেষ্টা করবেন।

৬. বাইরে থেকে ঘরে প্রবেশ করে হাত পা ভালো করে সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন।

৭. জ্বর সর্দি অথবা গা হাত পা ব্যথা অনুভব করলে সঙ্গে সঙ্গে ঔষধ নিতে শুরু করুন, তবে মাথায় রাখবেন ডাক্তার এর পরামর্শ ছাড়া কোনো রকম এন্টিবায়োটিক সেবন করবেন না।

৮. খাবার খাওয়ার আগে হাত সাবান দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নেবেন।

৯. গায়ে যদি রাষ্ বেরোয় অথবা চোখে অঞ্জনী হয় তবে সেগুলিও করোনা ভাইরাস এর লক্ষণ তাই এই সব উপসর্গ দেখা দিলে পারিবারিক ডাক্তার এর পরামর্শ নিন।

১০. করোনা ভাইরাস বা COVID-19 কোনো মরণ রোগ নয় তাই অযথা ভয় পাবেন না, লোক কেও ভীত করে তুলবেন না। যথা যত ঔষধ নিলে ইহা তে সুস্থ হয়ে ওঠা কোনো কঠিন ব্যাপার নয়।

১১. সব শেষে আপনার পাড়াতে অথবা আপনার পরিচিতির মধ্যে কারুর যদি COVID-19 হয়ে থাকে অথবা করোনা পজিটিভ আসে তবে তাকে ঘৃণা করবেন না, তার মনোবল বৃদ্ধি করুন তার প্রয়োজনের সামগ্রী তাকে পৌঁছে দিতে সাহায্য করুন।

১২. অযথা ভয়ের পরিবেশ তৈরি হতে দেবেন না।

আমাদের সকলের মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে সমাজকে করোনা মুক্ত করা সম্ভব এটা বিশ্বাস করুন।

পুনশ্চ: আপনার যদি আমাদের এই প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকে তবে আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন এবং করোনা মুক্ত দেশ গঠন করতে সাহায্য করুন।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

MAIN MENU